পর্বত [Mountain]

 সংজ্ঞা- 

সাধারণত ১০০০ মিটারের বেশি উঁচু আর অনেক বিস্তৃত শিলাময় ভূ-ভাগকে পর্বত [Mountain] বলে । পর্বতের মাথায় থাকে অনেকগুলি আকাশ-ছোঁয়া চূড়া বা শৃঙ্গ । শৃঙ্গগুলি অনেক সময় সাদা বরফের আবরণে ঢাকা থাকে ।

উৎপত্তি:- 

পর্বত [Mountain] সৃষ্টির কারণ সম্পর্কে নানান মতবাদ প্রচলিত আছে । অনেকের মতে পৃথিবী অবিরাম তাপ বিকিরণ করে ঠান্ডা হয়ে চলেছে । এর ফলে ভূ-পৃষ্ঠ শীতল হয়ে সংকুচিত হচ্ছে । ভূ-পৃষ্ঠের সংকোচনই পর্বত গঠনের প্রধান কারণ । সংকোচনের ফলে যে আলোড়ন বা কম্পন হয় তাতে ভূ-ত্বকের কোনো অংশ বসে যায়, আবার কোনো অংশ উঁচু হয়ে উঠে । এর ফলে ভূ-পৃষ্ঠে ভাঁজের সৃষ্টি হয় । ভাঁজের উচু অংশগুলিই পর্বত বা মালভূমি ।

পর্বতের শ্রেণিবিভাগ- 

(ক) ভঙ্গিল পর্বত বা ভাঁজ পর্বত [Fold Mountain], (খ) স্তুপ পর্বত [Block Mountain], (গ) আগ্নেয় পর্বত বা সঞ্চয়জাত পর্বত [Volcano or Mountain of Accumulation], (ঘ) ক্ষয়জাত পর্বত [Relict or Erosional or Residual Mountain]