সিন্ধু বা হরপ্পা সভ্যতা

সিন্ধু বা হরপ্পা সভ্যতা [The Indus Valley Civilisation or the Harappan Civilisation]:-

আবিষ্কার [The Discovery]:

 ১৯২২ খ্রিস্টাব্দে বাঙালি প্রত্নতত্ত্ববিদ রাখালদাস বন্দ্যোপাধ্যায় তাম্র-প্রস্তর যুগের সভ্যতার সবচেয়ে উন্নত নিদর্শন আবিষ্কার করেন । তিনি জন মার্শালের তত্ত্বাবধানে সিন্ধু প্রদেশের লারকানা জেলায় মহেন-জো-দরোতে মাটি খুঁড়ে ভারতীয় সভ্যতার উন্মেষকে কয়েক হাজার বছর পিছিয়ে দেন । প্রায় একই সময়ে দয়ারাম সাহানি পাঞ্জাবের মন্টগোমারি জেলার হরপ্পায় এই সভ্যতার নিদর্শন আবিষ্কার করেন । পরবর্তীকালে মার্টিমার হুইলার, রফিক মুঘল, ম্যাকে, রেইকস্‌, দিলীপকুমার চক্রবর্তী প্রভৃতি সিন্ধু সভ্যতার উপর ব্যাপক গবেষণা চালান । বর্তমানে মহেন-জো-দরো, কালিবঙ্গান, কোটডিজি, বনোয়ালি, লোথাল, ধোলিবিরা প্রভৃতি নানা স্থানে এই সভ্যতার নিদর্শন আবিষ্কৃত হয়েছে । সিন্ধু সভ্যতার অসংখ্য কেন্দ্র আবিষ্কৃত হলেও শহর বলতে অবশ্য মাত্র পাঁচ-ছয়টি বোঝায় । কিন্তু কোনো লিখিত সাহিত্যিক উপাদান পাওয়া যায়নি বলে এর রাজনৈতিক ইতিহাস কিছুই জানা যায় না । সিন্ধুলিপির পাঠোদ্ধার আজও সম্ভব হয়নি বলে এর ধ্বংসাবশেষ থেকেই এর পরিচয় পাওয়া যায় । সিন্ধু জনগণ পাথর ও তামা উভয়েরই ব্যবহার জানত । এই সভ্যতা কারা নির্মাণ করেছিল তা আজও রহস্যাবৃত । সম্ভবত ভারতীয়রাই এই সভ্যতার জন্ম দিয়েছিল । এই প্রাচীন সভ্যতার সময়সীমা সম্ভবত খ্রিস্টপূব ২৫০০ অব্দ থেকে ১৫০০ অব্দ পর্য়ন্ত (পরিণত পর্য়ায়) স্থায়ী ছিল ।

Leave a Comment